বিদায়-২০১৭ :: স্বাগতম-২০১৮

কাজী জহির উদ্দিন তিতাস :: বিদায়-২০১৭। পুরনো বছরের সকল জীর্ণতাকে পেছনে ফেলে ২০১৭ গত হয়ে গেল। সঙ্গে সঙ্গে শুরু হয়ে গেল নতুনের আবাহন। কুয়াশাচ্ছন্ন শীতের সন্ধ্যায় পূর্ব দিগন্তে চাঁদের আলো। রাত গড়াতেই শুরু হয়েছে নতুন বছরকে বরণের উৎসব। বিভিন্ন শহরের পাড়া ও মহল্লায় শুরু হয়েছিল উৎসবের মহোৎসব।
রাত ১১টা ৫৯ মিনিটের আগেই নতুন বছরকে স্বাগত জানাতে প্রস্তুত বিশ্ব। বাংলাদেশের যুব সমাজ ভেসে উঠেছিল উৎসবের আনন্দে। আমাদের দেশে এ বছর নিরাপত্তা জনিত কারণে থার্টিফাস্ট উদযাপনে কড়াকড়ি থাকলেও থেমে নেই দেশবাসী। সন্ধ্যার পর থেকেই মাঝে মধ্যে পটকা-আতশবাজি ফুটতে শোনা গেছে। প্রিয়জনের কাছে মোবাইলে এসএমএস এর মাধ্যমে নববর্ষের শুভেচ্ছা জানিয়েছে অনেকেই। অনেকে ফেসবুকে তাদের শুভেচ্ছা জানিয়েছে বন্ধুদের।
বছরের শুরুর দিনটি শিক্ষার্থীদের জন্য খুবই আনন্দের। প্রাথমিক ও মাধ্যমিক স্তরের শিক্ষার্থীর হাতে নতুন পাঠ্যবই তুলে দেবে সরকার। আর তাই শিক্ষার্থীদের কাছে দিনটি খুবই আনন্দময়।
২০১৭ সালটি আরেকটি কারণে স্মরণীয় হয়ে রয়েছে বাঙালীর অন্তরে । আর তা হল ২০১৭ সালে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঐতিহাসিক ৭ই মার্চের ভাষণ ইউনেস্কো কর্তৃক বিশ্ব প্রামাণ্য ঐতিহ্য হিসেবে মর্যাদা লাভ করেছে। ইহা আমাদের জন্য এক বিরাট অর্জন। এ অর্জন বাঙালি জাতি হিসেবে আমাদের অত্যন্ত গৌরবের। তাছাড়াও বাংলাদেশ অর্থনৈতিক উন্নয়নের পাশাপাশি রোহিঙ্গা সংকট যথাযথভাবে সামলে বৈশ্বিক দরবারে কুড়িয়েছে প্রশংসা।
বিভিন্ন ঘটনায় ২০১৭ সাল অতিবাহিত হলেও ২০১৮ রাজনৈতিক এবং অর্থনৈতিকভাবে অনেক গুরুত্বপূর্ণ। এ বছর জাতীয় নির্বাচন, তথা ভোটের বছর। আর সে হিসেবে রাজনৈতিকভাবে বেশ উত্তপ্তই থাকবে মাঠ।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এ জাতীয় আরো খবর..

ফেসবুকে আমরা...