মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নিকট চর আজমপুর, চরডাঙ্গা, চাপুলিয়া এবং বাজড়া বাসীর বেঁচে থাকার আকুতি

“সকালবেলার আমীর রে ভাই ফকির সন্ধ্যাবেলা”। মধুমতির নদীর ভয়াল কড়াল গ্রাসে বিলিন হয়ে যাচ্ছে ফরিদপুর জেলার আলফাডাঙ্গা উপজেলার আওয়ামী লীগের ঘাঁটি টগরবন্দ ইউনিয়নের শত শত বসতবাড়ী এবং হাজার হাজার একর জমি। চোখের সামনে বাপ দাদার ভিটা নদীগর্ভে বিলীন হয়ে যাচ্ছে যা মেনে নেওয়া কতটা কষ্টের একমাত্র ভুক্তভোগীরাই জানে। সকাল বেলা শত বিঘা জমির মালিক, সন্ধ্যাবেলায় সহায়-সম্বলহীন হয়ে যাচ্ছে। এইসব অসহায় মানুষে রয়েছে বুকফাটা আর্তনাদ অনেকে উপলব্ধি করলেও তাদের পাশে দাড়ানোর সাধ্য/সামর্থ্য কারো নেই। চোখে দেখে সহ্য করার মত নয়, তাই কথাগুলো জাতির জনকের কণ্যার নিকট তুলে ধরলাম। গোপালগঞ্জের কাশিয়ানী উপজেলা সংলগ্ন টগরবন্দ ইউনিয়নটি বঙ্গবন্ধুর আদর্শের ঘাটি হিসাবে সুপরিচিত। এখানকার ৯৮% জনগণ বঙ্গবন্ধুর আদর্শের অনুসারী এবং জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বের প্রতি গভীর আস্থাশীল। এই টগরবন্দ ইউনিয়নের মানুষ আজ অসহায়। মাননীয় সংসদ সদস্য বহু চেষ্টা করে কিছু বালুভর্তি বস্তা ফেললেও তা ছিল প্রয়োজনের তুলনায় একেবারেই অপ্রততুল যা কোন কাজেই আসেনি। মধুমতির কড়াল গ্রাস থেকে এসব অসহায় মানুষদের রক্ষা করতে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর জরুরী হস্তক্ষেপ প্রয়োজন। এলাকার অসহায়, সহায়-সম্বলহীন মানুষেরা আপনার নিকট পৌঁছানের সুযোগ না পেলেও আপনি তাদের খবর শুনে তাদের পাশে দাড়াবেন এই আশায় এখনো বুক বেধে আছে এই এলাকার হাজার হাজার বঙ্গবন্ধুপ্রেমী। অতিদ্রুত কার্যকরী পদক্ষেপ গ্রহন করে বঙ্গবন্ধুর এই অনুসারীদের আপনি রক্ষা করবেন এটাই আপনার নিকট ফরিদপুর-১ বাসীর কামনা।

এলাকাবাসীর পক্ষে আবেদনটি করছি আমি সিকদার লিটন চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী টগরবন্দ ইউনিয়ন পরিষদ আলফাডাঙ্গা ফরিদপুর

বিশেষ দ্রষ্টব্য সম্মানিত এলাকাবাসী আবেদনটা কপি করে আপনারা সকলে শেয়ার করবেন এবং সকলকে শেয়ার করার জন্য অনুরোধ করছি! এখান থেকে নিউজটার কথাগুলো নিয়ে নেন যতোটুকু নেওয়ার

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এ জাতীয় আরো খবর..

ফেসবুকে আমরা...