ফরাসি-ব্রিটিশ ‘পাখির লড়াই’ থামল অবশেষে!

চ্যানেল নিউজ :: এক শতকের দীর্ঘ ফরাসি-ব্রিটিশ ‘পাখির লড়াই’ থামল অবশেষে। হাজার বছর আগের কথা। সাভানা ও মাদাগাস্কারের বৃষ্টিঅরণ্যে তখনও দেখা মিলত বিশালাকার পাখি ‘এলিফ্যান্ট বার্ড’ বা ‘অ্যাপিওরনিস ম্যাক্সিমাস’-এর।

ছ’কোটি বছরের বাস ছিল তাদের। কিন্তু মানুষের শিকার হতে হতে এক সময় নিশ্চিহ্ন হয়ে যায় নিরীহ পাখিটি। এরা আকারেই বড় ছিল, কিন্তু লড়তে জানতো না।

ফরাসি বিজ্ঞানীদের দাবি ছিল, এটিই পৃথিবীর সব চেয়ে বড় পাখি। যদিও ১৮৯৪ সালেই ব্রিটিশ বিজ্ঞানীরা দাবি করেছিলেন ‘অ্যাপিওরনিস ম্যাক্সিমাস’-এর থেকে বড় ছিল ‘অ্যাপিওরনিস টাইটান’।

বিজ্ঞানী সি ডব্লিউ অ্যান্ড্রুর দাবি ছিল, সেটিই সব চেয়ে বড় পাখি। কিন্তু ফরাসি প্রতিপক্ষরা বলতে থাকেন, একটু বড়সড় চেহারার ‘ম্যাক্সিমাস’কেই নতুন নাম দিয়ে ‘টাইটান’বলা হচ্ছে।

দীর্ঘদিন ধরে এই নিয়ে বিতর্ক চলতে থাকে। সেই সঙ্গে পাখিটির কঙ্কাল, ডিমের জীবাশ্ম সংগ্রহ করে চলতে থাকে গবেষণাও।

বুধবার ব্রিটিশ বিজ্ঞানীরা দাবি করলেন, এলিফ্যান্ট বার্ড-এর অন্য একটি প্রজাতি আকারে আরও বড় ছিল। সেটির ওজন ছিল প্রায় ৮৬০ কিলোগ্রাম, প্রায় একটা জিরাফের সমান।

‘জুলজিক্যাল সোসাইটি অব লন্ডন’-এর প্রধান বিজ্ঞানী জেমস হ্যান্সফোর্ড বলেন, ‘এটি সম্পূর্ণ একটি আলাদা প্রজাতি। নাম রাখা হয়েছে ‘ভোরোম্বে টাইটান’। অন্তত তিন মিটার, অর্থাৎ ১০ ফুট উচ্চতা। ওজন গড়ে সাড়ে ছ’শো কেজি। তবে যে হাড়গুলি মিলেছে, তা থেকে অনুমান, কিছু পাখির ওজন ৮৬০ কেজিও ছিল। এখনও পর্যন্ত এটি সব চেয়ে বড় পাখি।’ হ্যান্সফোর্ডের গবেষণাপত্রটি প্রকাশিত হয়েছে ‘রয়্যাল সোসাইটি ওপেন সায়েন্স’-এ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এ জাতীয় আরো খবর..

ফেসবুকে আমরা...